হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বাংলাদেশের বৃহত্তম বিমানবন্দর যা ইতোপূর্বে জিয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বা ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নামে সারা বিশ্বে পরিচিত ছিল। বিমানবন্দরটির IATA কোড DAC এবং ICAO কোড VGHS । মানচিত্রে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সঠিক অবস্থান জানতে পড়ুন এই লেখাটি। আর আপনি যদি বিমানবন্দরের মূল স্থাপনার কোথায় কি আছে জানতে চান, তবে ডাউনলোড করতে পারেন এই ম্যাপটি যা আপনার খুবই কাজে লাগতে পারে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, যা সংক্ষেপে হশাআবি নামে পরিচিত, এর অবস্থান বাংলাদেশের রাজধানী শহর ঢাকা হতে প্রায় ২০ কিলোমিটার উত্তরে কুর্মিটোলা নামক স্থানে। বিমানবন্দরটির কার্যক্রম প্রথম শুরু হয় ১৯৮০ সালে তৎকালীন তেজগাঁও বিমানবন্দরের পরিবর্তে। ১৯৮১ একর জায়গা নিয়ে প্রতিষ্ঠিত বিমানবন্দরটিতে রানওয়ে সংখ্যা ১টি যা বাড়িয়ে ২টিতে উন্নীত করার পরিকল্পনা রয়েছে । বিমানবন্দরটি বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের অধীনে পৃথক প্রশাসন দ্বারা পরিচালিত হয় । বিমানবন্দরটি আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ মোট ফ্লাইটসমূহের ৬৫% এর বেশি ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে।

বিমানবন্দরটি প্রতি বছর প্রায় ৪০ লক্ষ আন্তর্জাতিক পথের যাত্রী এবং ২০ লক্ষের অধিক অভ্যন্তরীণ রুটের যাত্রী ব্যবহার করে থাকেন। বিমানবন্দরটি ২০২৬ পর্যন্ত প্রতি বছর প্রায় ৮০ লক্ষ যাত্রীকে সেবা দিতে সক্ষম বলে অনুমান বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের। যাত্রী সেবার বাইরে বিমানবন্দরটি প্রতি বছর প্রায় ১,৫০,০০০ টন মালামাল কার্গো ও মেইল হিসাবে পরিবহনের সুবিধা দিয়ে থাকে।

বিমানবন্দরটিতে বর্তমানে ৫টি দেশীয় এয়ারলাইন্স সহ মোট ২৬টি এয়ারলাইন্স তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করছে ১৯টি দেশের ৩৪টি শহরে (দেশ বিদেশ সহ) । দেশীয় এয়ারলাইন্সগুলি মূলতঃ এই বিমানবন্দরটিকে ভিত্তি করে তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। এয়ারলাইন্স গুলো হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, রিজেন্ট এয়ারওয়েজ, নভোএয়ার এবং ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। এছাড়াও এপিক এয়ার নামে অপর একটি দেশীয় এয়ারলাইন্স কোম্পানী তাদের কার্যক্রম শুরু করার জন্য চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

টার্মিনালসমূহঃ

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মোট টার্মিনাল সংখ্যা তিন যার মধ্যে অভ্যন্তরীণ যাতায়াত টার্মিনালটিও অন্তর্ভূক্ত। বিমানবন্দরের মূল ভবনে আন্তর্জাতিক টার্মিনাল ২টি অবস্থিত। টার্মিনাল ১ ও টার্মিনাল ২ আন্তর্জাতিক টার্মিনাল হিসাবে ব্যবহৃত হয়। মূল ভবনটির নিচতলায় আগমনী টার্মিনাল ১ ও ২ অবস্থিত এবং দোতলায় বহির্গমন টার্মিনাল ১ ও ২ অবস্থিত (যা প্রকৃতপক্ষে একীভূত টার্মিনাল)। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ ও উচ্চপদস্থ দেশী-বিদেশী কর্মকর্তাগণের যাতায়াতের সুবিধার্থে বিমানবন্দরের মূল গেইট হতে প্রায় ২০০ মিটার দূরে (মূল ভবন লাগোয়া) ভিআইপি টার্মিনাল রয়েছে।

ভালো লাগা ছড়িয়ে দিন!
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •